“Smile, it’s the second best thing that you can do with your lips!”
“সুহাসিনী ও সুভাষিনী, এ দুটি কথা আপনার ব্যাক্তিত্বকে প্রকাশ করে। আর ব্যাক্তিত্ব হল মুখের সৌন্দর্য, কথাপ্রকাশ ও মন-মুগ্ধকর অভিব্যাক্তি ফুটিয়ে তোলার সর্ব সেরা মাধ্যম!”- যা সর্বকালের সবচেয়ে বহুল স্বীকৃত বিবৃতি।
এ দুটি আভিব্যাক্তি প্রকাশের একমাত্র মাধ্যম হলো আমাদের “অধর বা ঠোট”। আপরদিকে নির্দিধায় বলা যায়, হাসি ও কথা বলা হলো আল্লাহ প্রদত্ত মনের অভিব্যক্তি প্রকাশের প্রাথমিক মাধ্যম।
আমাদের শৈশব থেকে মৃত্যু পর্যন্ত আমরা বিভিন্ন উপায়ে আমাদের বিভিন্ন অভিব্যক্তি প্রকাশ করতে অধর হাসি ব্যবহার করে থাকি।
কিন্তু, আপনি জানেন কি, শুষ্ক ঠোঁট কেবল আমাদের সমস্ত অভিব্যক্তিই নষ্ট করে না, আমাদের সুন্দর চেহারাও নষ্ট করে দেয়। আর তাই নিয়মিত ঠোঁটের যত্নই এর একমাত্র সমাধান। যা আপনি ঘরের কিছু নিত্যব্যবহার্য উপাদানদিয়েই করতে পারবেন।
আমারা ঠোঁটের নানা সমস্যায় আক্রান্ত হই কেন?
ঠোঁট হল আমাদের মুখের একটি খুব সংবেদনশীল অংগ। শুনে অবাক হবেন -ঠোঁটের কোনও তৈল গ্রন্থি নেই। তাই শুষ্ক বাতাস ও শীতের আবহাওয়ায় ত্বকের পাশাপাশি আমাদের ঠোঁটও খুব দ্রুত ময়েশ্চারাইজার হারায় এবং ড্রাই হয়ে যায়। কারন, আমরা কখনোই আমাদের অধরোষ্ঠ ঢেকে রাখতে পারি না।
যার জন্য যে কোনও অস্বাভাবিকতা ঠোঁটে ঘটলেই, লোকেরা তা দ্রুত লক্ষ্য করে। যেমন, উপরের বা নিচের ঠোঁট হঠাৎ ফোলে যাওয়া, ঠোঁটে কালো বা বাদামী স্পট পরা, ঠোঁটের চামড়া উঠা, ঠোঁটের কোনায় জ্বর ঠসা বা চিড়ে যাওয়া (angular stomatitis).
এ সমস্ত সামান্য সমস্যাগুলিকে অবহেলা করা একদমই ঠিক না। তাহলে তা বড় কোন রোগের প্রাথমিক লক্ষন থেকে ক্যান্সারের দিকেও মোড় নিতে পারে।
কাজেই নিয়মিত আমাদের এ সুন্দর ঠোঁটের যত্ন নেওয়া দরকার। আর এর যত্ন নেওয়ার মূল উপায় হ’ল লিপ স্ক্রাবারের মাধ্যমে আমাদের অধরকে নরম, কোমল মোলায়েম করে তোলা ও তা ধরে রাখা।
কেন আমাদের ঠোঁটের জন্য নিয়মিত স্ক্রাব ব্যাবহার করা দরকার?
আমরা প্রায় সবাই আমাদের ঠোটগুলিতে শুস্কতা অনুভব করলেই ঠোঁটকে আর্দ্র এবং মসৃণ করতে জ্বহবার সাহায্যে চাটি বা চুষি, যা সম্পুর্ন ভুল কাজ। বরং এভাবে আমাদের ঠোঁটকে আর্দ্র এবং মসৃণ করতে যেয়ে আমরা আস্তে আস্তে ঠোঁটকে শুষ্ক, ঝুলে পড়া, চামড়া উঠা বানিয়ে ফেলি। আর এ আলগা চামড়া গুলিকে দাত দিয়ে কেটে পরিস্কার করতে চেষ্টা করি, এতে ঠোঁটের চামড়া ফেটে যায়, এমনকি ফেটে যেয়ে রক্তক্ষরণের কারন বানিয়ে ফেলি।
তাই এগুলি না করে, নিয়মিত ঠোঁট স্ক্রব করার মাধ্যমে আমাদের ঠোঁটগুলির মৃত,আলগা চামড়াগুলি পরিস্কার করি এবং মানসম্পন্ন লিপ বাম ব্যবহার করি, তবে আমরা এই পরিস্থিতি এড়াতে পারি।
এ ছাড়াও নিয়মিত ঠোঁটের যত্নে অন্যান্য যেসব সুবিধা রয়েছে তা হল-
• এটি শুষ্ক এবং ফ্ল্যাশযুক্ত ত্বক অপসারণ করে, নতুন স্তরটি মসৃণ জমিন উদ্ভাসিত করে;
• নিয়মিত ঠোঁটের যত্নে ঠোঁটের চারপাশে বলিরেখা প্রদর্শিত হয় না।
• কালো স্পট/তিলা, গাঢ় দাগ এবং ঠোঁটের সানবার্ন এর দাগকে দূরকরে।
• এটি ঠোঁটে ময়েশ্চারাইজার শোষণের ক্ষমতাকে বাড়িয়ে দেয়।
• এছাড়াও নিয়মিত স্ক্রাবারের ফলে, ত্বকের অভ্যন্তরিন কোলেজেন এবং অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টগুলি ঠোঁটের উপরের স্তরের মৃত কোষগুলি সরিয়ে দিয়ে সিরাম বাড়িয়ে তুলতে সহায়তা করে।
• নিয়মিত ভিত্তিতে lip scrubber ব্যাবহার স্বাস্থ্যকর, উজ্জ্বল ও কোমল ঠোঁট পেতে সহায়তা করে।

ঠোঁটের জন্য ২ প্রকার স্ক্রাবার আছে
আমরা ঠোঁটের জন্য দুটি ধরণের স্ক্রাবার ব্যাবহার করতে পারি।
১) একটি রাসায়নিক, এবং
২) অন্যটি প্রাকৃতিক।

১) রাসায়নিক লিপ স্ক্রাবার
রাসায়নিক লিপ স্ক্রাবার মানে বাজারে আমরা যে রেডিমেড ঠোঁটের স্ক্রাবার দেখতে পাই সেটা। এদের বেশিরভাগ পণ্যগুলিতেই কৃত্রিম রাসায়নিক মিশ্রণ রয়েছে। এই সমস্ত পণ্য প্রাকৃতিক পণ্যগুলির চেয়ে দ্রুত কাজ করে এবং ফলাফল দেয়।
যার জন্য শুষ্ক এবং স্বাভাবিক ঠোঁটে একটি ভাল কার্যকারিতা দেখায়। তবে সংবেদনশীল ঠোঁটে এগুলি কম কার্যকারি প্রভাব ফে্লে অনেক সময় উল্টো রিইয়্যাক্শন হতেও দেখা যায়।

২) প্রাকৃতিক লিপ স্ক্রাবার

আমরা জানি সকল প্রাকৃতিক উপাদানগুলিতে ক্ষতিকারক রাসায়নিক বিক্রিয়া নেই বললেই চলে। বরং যে সব রাসায়নিক উপাদান আছে তা প্রাকৃতিক ভাবেই অনেক ঔষধী উপাদানে পরিপূর্ন। এই প্রাকৃতিক উপাদানগুলি ব্যবহার করে আপনি ঠোঁটের শোষণের জন্য ঘরে বসে স্ক্রাবার তৈরি করতে পারেন। যা সংবেদনশীল ঠোঁটে ভাল ফলাফল এনে দেয়।
চলুন আজ আমরা দেখি- কিভাবে ঘরোয়া পদ্ধতিতে নিত্য ব্যবহার্য প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে স্ক্রাবার তৈরি করা হয় আর সেই সব উপাদান গুলি কি ধরনের প্রকৃতিপ্রদত্ত রাসায়নিক উপাদান ধারন করে। এবং আমাদের সংবেদনশীল ঠোঁটে কিভাবে এটি প্রয়োগ করলে নরম, মসৃণ, নমনীয় এবং স্বাস্থ্যকর ঠোঁট পাওয়া যাবে।
I. চিনি – Sugar
চিনির মধ্যে আলফা-হাইড্রোক্সি অ্যাসিড (AHA), গ্লাইকোলিক অ্যাসিড ও হোমেট্যাক্যান্টস এর মতো প্রাকৃতিক রসায়ন রয়েছে। তাই চিনি ত্বকে ব্যাবহার ত্বকে এক্সফোলিয়েট তৈরি করে যা ঠোঁটের পৃষ্ঠের মৃত ত্বকের কোষগুলি সরিয়ে দেয় ও উদ্দীপক কোষ এবং নরম যুবক ত্বকের স্তর বাড়ায়।
হোমেট্যাক্যান্টস এক অনন্য সাধারন প্রাকৃতিক উপহার যা ঠোঁটকে ভেতর থেকে আমাদের ঠোঁট কোষ হাইড্রেট বা আর্দ্র করে। ফলে জ্বরঠাসা (angular stomatitis) নিরামইয়ে সহায়তা করে।
II. মধু – Honey
মধু একটি অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল উপাদানগুলির একটি প্রাকৃতিক উৎস। এটি আমাদের ঠোঁটের ত্বককে গভীরভাবে পুষ্টি দান এবং হাইড্রেট করে। মধু যেকোন ধরণের ঠোঁটের ছত্রাকের সমস্যা নিরাময় করে।
III. জৈব তেল- Organic Oils
জৈব তেলগুলিতে দুর্দান্ত পুষ্টিকর সুবিধা আছে। এটি ২প্রকারঃ
• Carrier Oil – উদ্ভিজ তেল, এবং
• Essential Oil – সুগন্ধী তেল হিসাবে পরিচিত।
এই তেলগুলিতে স্বতন্ত্র রোগ নিরাময়ের বেশ কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে। ক্যারিয়ার অয়েল গুলিতে ময়েশ্চারাইজিং পাওয়ার এর পাশাপাশি এক্সফোলিয়েশন ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে যা আপনাকে নরম চকচকে এবং পালিশ ঠোঁট দেয়।
আর এসেনশিয়াল অয়েলে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি যৌগ রয়েছে যা ঠোঁট ফাটা নিরাময় করবে।
Carrier Oil কে উদ্ভিজ তেল বা বেস তেল ও বলে। যেমনঃ নারকেল, বাদাম, জলপাই, জোজোবা, ক্যাস্টর অয়েল আঙ্গুর বীজ এবং অ্যাভোকাডো তেল।
Essential Oil হল সুগন্ধ তেল যা গাছের ছাল থেকে বানানো হয়। যেমনঃ তুলসি, নিম, এবং চা গাছের তেল।
এ দুটি তেল কয়েক ফোটা করে নিয়ে একসাথে মিশিয়ে ব্যাবহার করতে হয়।
IV. লেবুর রস- Lemon Juice
লেবু রসে আয়রন, ভিটামিন সি এবং বি-কমপ্লেক্সের সমৃদ্ধ পরিমাণ রয়েছে। এটিতে প্রচূর পরিমানে ফলিক অ্যাসিড রয়েছে। এছাড়াও সমৃদ্ধ পরিমাণ রয়েছে আয়রন, ভিটামিন সি এবং ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স, যা প্রাকৃতিক ত্বক পরিষ্কারকারী হিসাবে কাজ করে।

স্ক্রাবার তৈরি করার সময় আমাদের আর যেসব উপাদান লাগবে তা হল-
• ছোট শুকনো কাচের বাটি – ১টি
• অতিরিক্ত স্ক্রাবার সংরক্ষনের জন্য – ১টি ছোট কাচের বোতল।
• পরিমাপের জন্য – ১টি চা চামচ।

স্ক্র্যাবার তৈরি করা ও প্রক্রিয়াজাতকরণের ধাপ গুলি নিচে দেওয়া হল-
ধাপঃ১ মিশ্রণ বাটিতে ব্রাউন সুগার বা নরমাল চিনি নিন – ৩ থেকে ৬ চা চামচ।
ধাপঃ২ মধু মিশান – ৫ চা চামচ।
ধাপঃ৩ যে কোন কার্যকর জৈব ক্যারিয়ার তেল – ১ চা চামচ
ধাপঃ৪ এসেন্সিয়াল অয়েল ২ থেকে ৪ ফোটা ( এটি ঐচ্ছিক আমি সবসময় বাড়িতে তৈরি জৈব নারকেল তেল ও নিম তেল ব্যবহার করি।)
ধাপঃ৫ লেবু রস ১/২ চা চামচ
এবার সমস্ত উপাদান সমান ভাবে মেশান। তবে খেয়াল রাখবেন চিনি যেন দানা-দার থাকে, গলে না যায়। এবার এটিকে এয়ারটাইট গ্লাস জারে সংরক্ষন করুন।
[নোটঃ সম্পূর্ন প্রকৃয়াটি আঙ্গুল এর স্পর্শ ছাড়া চামচ দিয়ে করবেন। তা হলেই এ স্ক্রাবারটিকে ৪ থেকে ৫ সপ্তাহের জন্য ঘরের তাপমাত্রায় রাখে ব্যবহার করা যাবে]

ঠোঁটে স্ক্রাবার লাগানোর পদ্ধতি
 প্রথমে আংগুলে অল্প একটু স্ক্রাবার নিন।
 আপনার ঠোঁটে আলতো করে ১ থেকে ১.৫ মিনিটের জন্য বৃত্তাকার গতিতে এটি ঘষুন।
 আরও ১ মিনিট ঠোটে রেখে দিন যাতে এটিকে ভাল ভাবে ঠোঁট শোষণ করতে পারে।
 এবার স্বাভাবিক পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

স্বাস্থ্যকর আকর্ষনিয় সুন্দর ঠোঁট পেতে সতর্কতা টিপস
আপনার ঠোঁটকে উদ্দিপ্ত করতে স্ক্রাবার ব্যাবহার করার সময় সর্বদা নিম্নলিখিত তথ্যগুলি মাথায় রাখবেন;
• স্ক্রাবারটি খুব আলতো করে ম্যাসাজ করুন। কঠোর উপায়ে এটি করবেন না। এতে ঠোটের চামড়া ছিড়ে যেতে পারে।
• আপনি আপনার ঠোঁট চাটবেন না। এতে ঠোট আদ্র হবার বদলে আরো শুষ্ক ও ফেটে যাবে।
• আপনার ঠোঁটে আর্দ্রতা বজায় রাখার জন্য স্ক্রাব করার পরে একটি ভাল কোয়ালিটির লিপ বাম ব্যবহার করুন।
• এবং দিনে ৩ বার ও প্রতি রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে লিপ বাম ব্যাবহার করুন।
• সংবেদনশীল ঠোঁটের জন্য বাইরে যাওয়ার ২০ মিঃ আগে আপনি এসপিএফ আছে এমন খাঁটি প্রাকৃতিক লিপ বাম ঠোঁট ব্যবহার করতে পারেন।

পরিশেষে বলবো, নরম, কোমল স্বাস্থ্যকর আকর্ষণীয় ঠোঁটে দেহের সুস্থতা ফুটে উঠে। কারন, মানুষের ঠোঁট একটি সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ মূর্ত সংবেদনশীল দৃশ্যমান অংগ। যা শুধু খাদ্য গ্রহণ, শব্দ এবং বাক্য উচ্চারণে জন্য ব্যবহৃত হয় না একটি সকলের সতন্ত্র ব্যাক্তিত্বকেও প্রকাশ করে। সুন্দর ঠোঁটের মিষ্টি হাসি মানুষের মনে জায়গা করে নেয় নিমিষেই। তাই আমাদের প্রত্যেকেরই উচিৎ, নিয়মিত ঠোঁটের যত্ন নেওয়া।

উম্মে নাহার মীরা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here